নোমান মাহফুজের গুচ্ছ ছড়া ‘আরাকান’

0

(১)
রুখো!

রাখাইনে হত্যাযজ্ঞ
চলছেই দেখো,
মুসলিম শত মারে
রুখো সবে রুখো।
জাতিসংঘ চুপ কেন
জবাবটা চাই,
সুচি কেন বেপরোয়া
শান্তি কেন নাই।
আর কতো মুসলিম
মরে হবে লাশ,
বাড়িঘর ছেড়ে সবে
করছে হাসফাস।
মুসলিম নামধারী
শাসকেরা শুনো,
মুখ এঁটো বসা নয়
পদক্ষেপ আনো।

(২)
বিশ্ব বিবেক চুপ!

রাখাইনে হত্যাকান্ড
বিশ্ব বিবেক চুপ,
পা চাটা গোলামদের
এ কেমন রুপ।
খুন ধ্বংস গুলাগুলি
কান্নায় ভারী বার্মা,
নর-নারী শিশুদের
করে না তো ক্ষমা।
আশ্রয়ের পথ খুঁজে
দেয় না কেউ পথ,
যুক্তি তর্ক নীরবতা
দেখায় কতো মত।
খুনি সুচি আয়েশেতে
পায়েশ খায় রক্তে,
প্রতিরোধে কেউ নাই
আছে সবাই ভক্তে।

(৩)
আর কতো?

মায়ানমারে গুলাগুলি
মরছে মুসলমান,
চুপ রয়েছে দেশ-সংঘ
হায়রে নাফরমান।
মুখ থাকে মানবতায়
কাজের বেলায় ঘৃণ্য,
মুসলিম নিধন খেলে
হচ্ছে ওরা জঘন্য।
সুচির দেশে মুসলিম
আর কতো মরবে,
কবে যে বিশ্ব মোড়লরা
মুখটা খুলবে?

(৪)
মানবতা! চোখটা খুলো

রোহিঙ্গারা জাতে মানুষ
ধর্মে মুসলমান,
নাফ নদে ভাসছে তারা
বাঁচাও রহমান।
কাঁটাতারে দাড়িয়ে আছে
বেঁচে থাকার জন্যে,
জান বাঁচাতে বাংলাদেশে
ছুটছে শতজনে।
মানবতা! চোখটা খুলো
আর থেকো না ঘুমে,
আর্তনাদে আকাশ ভারী
মুখটা খুলো মর্মে।

(৫)
কেন?

রোহিঙ্গা নিধনে সবাই চুপ
মানবতাবাদে কেমন রুপ?
বিবেক জাগ্রত হয় না কেন
মুসলিম লেবাসে মোড়া কেন?
নাফ নদের পানিতে রোহিঙ্গা
ভাসছে দেখেও কেন অবজ্ঞা?
হিংস্র সুচির কবলে কতো
মরবে রোহিঙ্গা এতশত?
সংঘ সংসদ জাগবে কখন
এখনো কি মানবতা হয়নি লঙ্গন?

Comment

Share.

Leave A Reply