যে কারণে স্বামীকে ডিভোর্স দিলেন হ্যাপি

0

অবশেষে অনেক আলোচনা সমালোচনার পর ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন চিত্রনায়িকা নাজনীন আক্তার হ্যাপি। শনিবার (৭ অক্টোবর) সন্ধ্যায় তার ফেসবুকে দেয়া এক স্ট্যাটাসে এ কথা জানিয়েছেন তিনি।  হ্যাপির স্ট্যাটাসটি আপনাদের জন্য হুবহু দেয়া হলো।

আমি ফাইনালি ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।  আর সম্ভব হচ্ছে না।  খুব দ্রুত কাগজপত্রের মাধ্যমে সবকিছু শেষ করব ইনশাআল্লাহ! কেন ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নিলাম?

বিয়ের পর থেকেই তার আসল চেহারা প্রকাশ পেতে থাকে।  নানাভাবে সে আমাকে মানসিক যন্ত্রনায় রাখতো।  আমার পরিবারের সাথে খারাপ ব্যবহার করতো।  স্ত্রীর হক আদায়ে সে সক্ষম ছিল না।  তবুও কুরবানী করার জন্য নিজেকে বুঝিয়ে চেষ্টা করেছিলাম যে, বিয়ে যখন হয়েই গেছে যত কষ্ট হয় হোক।

কিন্তু সে এসব আমার দূর্বলতা মনে করতো হয়তো! প্রথম দিকে তার সাথে কথা কাটাকাটি করলেও কয়েকমাস যাবত আমি না পারতে কিছুই বলতাম না।  সে বেশিরভাগ সময়ই স্মার্টফোন নিয়ে পড়ে থাকে।  গান গায়।  মিউজিক শুনে। এসব দেখে আমি তাজ্জব হয়ে যেতাম। মনে হতো, হায় আল্লাহ! আমি তো দ্বীনদার দেখে বিয়ে করেছিলাম। এখন একি অবস্থা!

তবুও সবর করে যাচ্ছিলাম।  সে আমার সাথে খুব বাজে ব্যবহার করে যাচ্ছিল।  তার ফ্যামিলিও তার মত।  এত ছোট মন মানসিকতার মানুষ আমি এর আগে দেখিনি।

সে পরিচিত ছাড়া কাউকে নিজ থেকে সালাম দিতো না, বাইরে হাসিমুখে কারও সাথে কথা বলতো না।  বরং কোনো বাজে সিচ্যুয়েশনে পড়লে সে আরও বাজে করে ফেলতো। অথচ প্রকৃত দ্বীনদারের সিফত এরকম হওয়ার কথা না।

এরকম হাজারো সমস্যার সাথে আর পেরে উঠছি না।  প্রথমে জানতাম সে তাবলিগ করে এবং এই মেহনতকে ভালবাসে কিন্তু আস্তে আস্তে জানলাম সে আসলে এমনিই চিল্লা দিয়েছে।  লাস্ট ঈদে ১০ দিনের জামাতে যখন গেলাম এক প্রকার যুদ্ধ করে।  সে মাশোয়ারায় বসতে চায়না। আর তবলীগওয়ালাদের খারাপ বলতে থাকে শুধু। সবকিছু নিয়ে খুব মর্মাহত হই। এবং শুধু আলেমদের দোষ খুঁজে বেড়ায়।

কি ভাবলাম আর কি হয়ে গেল! হয়তো এসব আমার গুনাহর শাস্তি।  আল্লাহ হয়তো এর মধ্যেই ভাল কিছু রেখেছেন যেটা আমি জানিনা।  এসব প্রকাশ করতে চাইনি। কিন্তু না করে পারলাম না কারণ আমি চাইনা আমার ডিভোর্সের পর আমার পরিবারের কেউ কোনো প্রশ্নের সম্মুখীন হোক।  আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন,আমি জুলুমের স্বীকার, আর যেন ধোকা খেতে না হয়।  আর আল্লাহ যেন আমাকে হেদায়েতের উপর রাখেন।

বিঃদ্রঃ আমার ডিভোর্স হলে এমনিতেই তা প্রকাশ পেয়ে যাবে।  আমি আগে থেকেই জানিয়ে দিলাম।  যাইহোক, যা কিছুই হোক না কেন আমি সব অবস্থাতে আমার আল্লাহর উপর রাজি আলহামদুলিল্লাহ!

এমটিনিউজ২৪.কম

Comment

Share.

Leave A Reply