চাঁদপুরে আঞ্চলিক ইজতেমা শুরু, লাখো মুসল্লিদের ঢল

0

টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমা কমিটির তত্ত্বাবধানে প্রথমবারের মতো চাঁদপুরে মেঘনা নদীর পাড়ে শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী আঞ্চলিক ইজতেমা। আজ বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) ফজরবাদ বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে চাঁদপুর জেলা ইজতেমার কার্যক্রম।

এরপর যোহর, আছর ও মাগরিববাদ শুরু হবে বয়ান। ১ ডিসেম্বর ফজর, যোহর, আছর ও মাগরিববাদ এ চার ধাপে বয়ান অনুষ্ঠিত হবে। ২ ডিসেম্বর শনিবার সকাল আটটা হতে দশটার মধ্যে আখেরী মোনাজাতের মাধ্যমে ইজতেমা সমাপ্ত হবে। সমাপনী দিনে আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করবেন কাকরাইল মসজিদের মুরবি্ব।

গতকাল বুধবার বাদ যোহর থেকে শুরু হয় ইজতেমা অভিমুখে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের ঢল। আল্লাহ, আল্লাহ জিকিরের ধ্বনিতে সমবেত হতে থাকে সব বয়সী মুসলমান। নদী, সড়ক ও রেলপথে দূর-দূরান্ত থেকে অগণিত মানুষ জড় হয় ইজতেমা মাঠে তাঁবুর নিচে।
আছর নামাজের পর কানায় কানায় পূর্ণ হতে থাকে ইজতেমাস্থল।

টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমার তত্ত্বাবধানে প্রথমবারের মতো চাঁদপুর জেলা শহরের ব্যবসায়িক এলাকা পুরাণবাজার জাফরাবাদ মেঘনা নদীর পাড়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে এ ইজতেমা। এখানে ৫ লাখেরও বেশি মুসল্লির সমাগম হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ইজতেমা মাঠের আমির আলহাজ্ব আরিফুল্লাহসহ তাবলীগ জামাতের স্থানীয় মুরব্বিরা জানান, মানুষের ঈমান ও আমলকে মজবুত করার উদ্দেশ্য নিয়ে আয়োজন এ ইজতেমার। ইজতেমার প্রধান সমন্বয়কারীর দায়িত্বে রয়েছেন মাওলানা আব্দুর রশিদ। আরো আছেন স্থানীয় মুরব্বি আলহাজ্ব মোঃ জাহাঙ্গীর আখন্দ সেলিম, আলহাজ্ব সিরাজুল ইসলাম খান, মাওঃ আব্দুল লতিফ, অহিদুর রহমান বাবুসহ আরো অনেকে। স্বেচ্ছাশ্রমে শরীক হয়েছেন আলহাজ্ব বিল্লাল হোসেন আখন্দ, নিলু হাওলাদার, সেলিম মেম্বারসহ এলাকাবাসী।

এদিকে ইজতেমায় মুসল্লিদের যাতে কোনো ধরনের সমস্যা না হয় সে ব্যাপারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর রয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার পিপিএম। এ বিষয়ে গতকাল ২৯ নভেম্বর বুধবার দুপুরে পুরাণবাজার মধুসূদন উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তিনি জেলা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সাথে বৈঠক করেন।

পুলিশ প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, ইজতেমা মাঠের সার্বিক নিরাপত্তায় এসএসএফ, র‌্যাব, ডিবি, ডিএসবিসহ পোশাকধারী এবং সাদা পোশাকে প্রায় ৩৯০ জন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন রয়েছে। #ইনসাফ

Comment

Share.

Leave A Reply