হাটহাজারী মাদরাসায় হাইআতুল উলয়ার বৈঠক অনুষ্ঠিত; গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তগ্রহণ

0

সম্মিলিত কওমি শিক্ষাবোর্ড আল-হাইআতুল উলয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশ-এর আইনী খসড়া চূড়ান্ত এবং কয়েকটি অমিমাংসিত বিষয় সমাধানের জন্য চট্টগ্রামে মঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদরাসায় হাইআতুল উলয়া দায়িত্বশীলদের বৈঠক সম্পন্ন হয়েছে।

বৈঠকে পূর্বের কমিটি চূড়ান্তসহ অমিমাংসিত বিষয়ের সমাধান করা হয়েছে। বৈঠকে সব বোর্ডের নেতারা সিদ্ধান্তের উপর একমত হয়েছেন বলেও জানা যায়।

হাইআতুল উলয়ার চেয়ার‌ম্যান শায়খুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমদ শফীর সভাপতিত্বে সকাল ১০টয়ি শুরু হওয়া এই বৈঠক দুপুর পর্যন্ত চলে।  বৈঠক শুরু হয়।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, কো-চেয়ারম্যান আল্লামা আশরাফ আলী, সদস্য আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী, মুফতী মুহাম্মদ ওয়াক্কাস, মাওলানা আবদুল কুদ্দুছ, মাওলানা মুহাম্মাদ নূরুল ইসলাম, মুফতি রুহুল আমীন, মাওলানা শামসুল হক, মুফতী শাসমুদ্দীন জিয়া, মাওলানা আব্দুল বছীর, মাওলানা আরশাদ রাহমানী, মাওলানা মাহমুদুল আলম, মাওলানা মোহাম্মাদ আলী, মাওলানা ইয়াহইয়া মাহমূদ, মাওলানা আব্দুল হামীদ, মাওলানা সাজিদুর রহমান, মাওলানা মুফতী ফয়জুল্লাহ, মাওলানা মুসলেহ উদ্দীন রাজু, মাওলানা মাহফুজুল হক, মাওলানা আবদুর রহমান হাফেজ্জী, মাওলানা মুফতী জসীমুদ্দীন, মাওলানা আনাস মাদানী, মাওলানা মুফতী নূরুল আমীন, মাওলানা উবায়দুর রহমান মাহবুব, মাওলানা মোস্তাক আহমদ, মাওলানা নূরুল হুদা ফয়েজী, মাওলানা এনামুল হক, মাওলানা আবদুল জব্বার জেহাদী।

আসুস্থতার কারণে আল্লামা আবদুল হালিম বুখারী, আল্লামা মাহমুদুল হাসান, আল্লামা আনোয়ার শাহ ও মাওলানা মোস্তাফা আজাদ বৈঠকে উপস্থিত হতে পারেননি। তবে তারা প্রতিনিধি পাঠিয়েছেন।

বৈঠক সূত্র জানায়, কওমি মাদরাসার সরকারি স্বীকৃতি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন নয় বরং হাইআতুল উলয়ার আধীনেই নেয়া হবে। কর্তৃপক্ষ আইন ভিত্তিতে মাস্টার্সের সনদ দেবে প্রতিষ্ঠানটি।

এ ছাড়া কো-চেয়ারম্যান ২ নিয়োগের যে আবেদন এসেছিল, সেটি আপাতত হচ্ছে না বলে জানা যায়। আল্লামা আহমদ শফী পূর্বের ৩২ সদস্যের কমিটি বহাল রেখেছেন এবং এতে কোনো রকম পরিবর্তন এ মুহূর্তে প্রয়োজন নেই বলেন মত দেন। সভায় তার সঙ্গে ঐক্যমতে আসেন উপস্থিত সদস্যরা।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন হাইআতুল উলয়ার অন্যতম একজন সদস্য কওমিকণ্ঠকে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনে দেয়া আইনী খসড়ার কিছু বিষয়ে আলোচনা উঠলেও আজকের বৈঠকে কোনো পরিবর্তন আসেনি। পূর্বের সিদ্ধান্তকে সবাই মেনে নিয়েছেন।

তিনি বলেন, আল্লামা আহমদ শফী সবাইকে বৈঠকে উপস্থিত দেখে খুশি হয়েছেন। সবাই এক হয়ে কাজ করায় তিনি সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, আমরা সবাই ভাই ভাই। সবাই এক থেকে ঐক্য হয়ে কাজ করবো ইনশাল্লাহ।

বৈঠক শেষে আল্লামা শাহ আহমদ শফী দীর্ঘ মুনাজাত করেন। -সূত্র. আওয়ারইসলাম

Comment

Share.

Leave A Reply