স্বাগতম ২০১৮

0

পূর্বাকাশে উদিত হল ভোরের সূর্য। একটু একটু করে চারদিকে ছড়িয়ে পড়ল আলোর ঝরনাধারা। কুয়াশার চাদরে মুড়িয়ে থাকা প্রকৃতিও উঠল জেগে। আজকের এ সূর্য, আজকের এ ভোর নিয়ে এসেছে এক নতুনের বার্তা। ২০১৮ সালের প্রথম সূর্যোদয় এটি। নতুন বছর সুন্দর হওয়ার বাসনায় সবাই রবি ঠাকুরের মতোই বলবেন, ‘দূর হইলো দৈন্যদ্বন্দ্ব/ছিন্ন হইলো দুঃখবন্ধ/উৎসবপতি মহানন্দ/তুমি সুন্দরতম’। সেই সুন্দরের প্রত্যাশাতেই স্বাগতম ২০১৮।

সকালে খ্রিস্টীয় নতুন বছরের সূর্যোদয় হলেও রোববার রাত ১২টায় ঘড়ির কাঁটা শূন্যের ঘর অতিক্রমের সঙ্গে সঙ্গেই গণনা শুরু হয়েছে নতুন বছরের। নতুন বছর মানেই নতুন উদ্দীপনা আর প্রেরণা নিয়ে এগিয়ে চলা। পেছনে ফেলে আসা ২০১৭ সালের ভুল, হতাশা, দুঃখ, গ্লানিকে দূরে ঠেলে দিয়ে নতুন উদ্যমে সাহস নিয়ে পথচলা। পৃথিবীর ইতিহাস বলে, মানুষের এগিয়ে যাওয়ার এ স্পৃহাই তাকে নিয়ে এসেছে এতদূর। তাই সব অপশক্তি আর বাধাকে জয় করে নতুন স্বপ্ন বুকে নিয়ে বাংলাদেশের মানুষ এগিয়ে যাবে। বাঙালির অগ্রযাত্রার যে ধারা শুরু হয়েছে তাতে ২০১৮ সালে যুক্ত হবে নতুন মাত্রা। রাজনৈতিক, সামাজিক, অথনৈতিক, সাংস্কৃতিক, শিক্ষাসহ সব ক্ষেত্রে এগিয়ে যাবে- এমন প্রত্যাশা দেশের সব মানুষের। গত বছর যে আশা-প্রত্যাশা নিয়ে পথচলা শুরু হয়েছিল তার অনেকখানি হয়তো পূরণ হয়নি। কিন্তু তাতে কিছু যায় আসে না, নতুন উদ্যাম নিয়ে এগিয়ে গেলে সাফল্য আসবেই।

নতুন ইংরেজি বছরের আগমন উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিরোধী দলের নেতা রওশন এরশাদ। বাণী দিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াও।

Comment

Share.

Leave A Reply