যেভাবে টনসিল ইনফেকশন বুঝবেন

0

ঘন ঘন গলা ব্যথা, সঙ্গে জ্বর- এটি টনসিলে ইনফেকশনের অন্যতম লক্ষণ। গলাব্যথার কারণে শিশুরা খাওয়া-দাওয়া বন্ধ করে দেয়, তখন দেহে পানিশূন্যতা ও ক্যালরির অভাব দেখা দেয়। ঘন ঘন টনসিলে ইনফেকশন হলে এটি আকারে বড় হয়ে যায় এবং শ্বাস-প্রশ্বাসের রাস্তা ও খাদ্যগ্রহণের পথ বাধাগ্রস্ত হয়।

রাতে শিশু ঘুমের মধ্যে হা করে ঘুমায়, শব্দ করে ও অনেক সময় দম বন্ধ হয়ে যায় কিংবা দম নেয়ার জন্য ছটফট করে। তবে এটি সাধারণত এডেনয়েড গ্রন্থি বড় হয়ে গেলে হয়, তবে টনসিল বড় হলেও হতে পারে। এ সমস্যা হলে বাচ্চা ঘুমানোর সঙ্গে নাক ডাকতে শুরু করে। এ অবস্থা শরীরের জন্য হুমকিস্বরূপ। কারণ এ সময় দেহে অক্সিজেনের মাত্রা দ্রুত কমতে থাকে এবং শরীরে জীবন বাঁচানোর প্রক্রিয়াগুলো সক্রিয় হয়ে উঠে। এ বাচ্চারা খিটখিটে মেজাজের হয়ে যায়, পড়ালেখায় অমনোযোগী হয়, অবাধ্য হয় এবং সঠিক মেধা কমে যেতে থাকে।

অনেকে মনে করেন, টনসিল বা এডেনয়েডের সমস্যা বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে কমে যাবে। একথা আংশিক সত্য। শিশুর জীবনের প্রথমে এ ধরনের অসুস্থতায় যদি বাচ্চা ঘন ঘন ভোগে তবে চিকিৎসকের পরমর্শে অপারেশন করিয়ে নেয়াই ভালো।

অধ্যাপক ডা. জাহীর আল আমিন, নাক কান গলা বিশেষজ্ঞ ও সার্জন, ইমপালস হাসপাতাল, তেজগাঁও, ঢাকা

Comment

Share.

Leave A Reply