ঐক্যবদ্ধ জমিয়তের জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি : মাওলানা শাহীনূর পাশা চৌধুরী

0

ইলিয়াস মশহুদ : গতকাল সন্ধ্যায় জামিয়া দারুল কুরআন সিলেট’এ শুভাকাঙ্ক্ষীদের নিয়ে মতবিনিময় সভায় জমিয়তের কেন্দ্রীয় সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব, সাবেক  সংসদ সদস্য এডভোকেট মাওলানা শাহীনূর পাশা চৌধুরী বলেন, ঐক্যবদ্ধ জমিয়তের জন্য সুচনা থেকে চেষ্টা করে অাসছি। অাকাবিরের দলকে তৃণমূল পর্যায়ে পৌছে সাধ্যমত কাজ করে এসেছি। কখনো অনৈক্ক্য বা বিভক্তি সৃষ্টি হতে দেইনি। এখনো আমরা জমিয়তের ঐক্যবদ্ধ প্লাটফরম দেখতে চাই। এর আমার প্রচেষ্টা অব্যাহত অাছে থাকবে। আপনারা ধৈর্যধারন করেন। শীঘ্রই আমার অবস্থান পরিষ্কার করবো।

উল্লেখ্য, গত ১১ জানুয়ারি জমিয়তের (মুফতী ওয়াক্কাস গ্রুপ) জাতীয় কনভেনশনে ঘোষিত কমিটিতে মাওলানা শাহীনূর পাশা চৌধুরীকে সহসভাপতি নির্বচিত করা হয়। 

আপনাকে আজকের (১১ জানুয়ারি) জমিয়তরে জাতীয় কনভেনশনে সহসভাপতি হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে- এসম্পর্কে জানতে চেয়ে মুঠোফোনে তাঁর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘আমি জানি না’। আমার সাথে এ বিষয়ে কোনো আলোচনা হয়নি।’

এছাড়া জমিয়তের দৃশ্যমান দুই গ্রুপ (মুফতি ওয়াক্কাস ও নূর হোসাইন কাসেমী) নিয়ে চলমান জটিলতা, শাহীনূর পাশা চৌধুরীর নিরবতা সাধারণ নেতাকর্মসহ উভয় গ্রুপের হাইকমান্ড দ্বিধার মধ্যে ছিল। তিনি নিজেও কোনো পক্ষাবলম্বন না করে বিবদমান দ্বন্দ্ব নিরসনে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। 

এরই মাঝে জমিয়তের (নূর হোসাইন কাসেমী গ্রুপ) বেশ কয়েকটি কেন্দ্রীয় আমেলা র বৈঠকে রহস্যজনকভাবে তাঁকে আমন্ত্রণ করা হয়নি। এছাড়াও গত ৭ জানুয়ারি সভাপতি আল্লামা শায়খ আব্দুল মোমিন ইমামবাড়ির বিশেষ ক্ষমতাবলে সিলেটের দারুল কুরআনে আহুত আমেলার জরুরি বৈঠকটিও শেষ পর্যন্ত শাহীনূর পাশার পতিষ্ঠান জামিয়া দারুল কুরআনে অনুষ্ঠিত হয়নি। সর্বশেষ ঢাকায় অবস্থিত কেন্দ্রীয় আমেলার বৈঠকেও তাঁকে আহবান করা হয়নি। এনিয়ে তাঁর মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছিল। এসব বিষয় নিয়ে তাঁর নিজের ফেসবুক ওয়ালেও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

সিদ্ধান্তহীনতা বা নিরবতার কারণে বৃহত্তর সিলেটে তাঁর লক্ষাধিক জমিয়ত সমর্থক, শুভাকাঙ্খিও নিজেদের অবস্থান পরিস্কার করতে পারছিলেন না। তারা চেয়ে আছেন নেতা শাহীনূর পাশা চৌধুরীর সিদ্ধান্তের দিকে। 

গত ১১ জানুয়ারি মাওলানা শাহীনূর পাশা তাঁর ফেসবুক আইডি থেকে ঘোষণা দেন- ১৩ জানুয়ারি শুক্রবার দারুল কুরআন মাদরসাায় দলীয় নেতাকর্মী ও শুভাকাঙ্খিদের সাথে পরামর্শ করে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে সিদ্ধান্ত জানাবেন। নিজের অবস্থান পরিস্কার করবেন।

গতকাল শুক্রবার বাদ মাগরিব থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত তাঁরই প্রতিষ্ঠান জামিয়া দারুল কুরআনে এক মতবিনিময় সভা করেন। যেখানে বৃহত্তর সিলেটের শতাধিক শুভাকাঙ্ক্ষী অংশ নেন এবং অধিকাংশ নেতা কর্মী বক্তব্য রাখেন। নিজেদের সকল দুঃখ ও বেদনার কথা উপস্থাপন করেন।

সভায় সকলেই ঐক্যের পক্ষে জোর দাবী তুলেন এবং শাহীনূর পাশা চৌধুরীকে সামনে এগিয়ে যাওয়ার পরামর্শ প্রদান সহ দেশের তৃণমূল থেকে হাইকমান্ড পর্যন্ত সর্বস্থরের সিংগভাগ নেতৃবৃন্দ তাঁর সিদ্ধান্তের পথ চেয়ে আছেন বলে অবিহিত করেন। তিনিও সকলকে সাথে নিয়ে একসাথে পথচলার দূঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন! তিনি বাংলাদেশসহ অন্যান্য দেশের জমিয়ত নেতৃবৃন্দের পরামর্শক্রমে সর্বশেষ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন বলে আশ্বাস দেন।

Comment

Share.

Leave A Reply