ইফতেরাক্ব নয়; প্রয়োজন ইত্তেফাক্ব

0

ইমদাদুল হক নোমানী:
মাযহাবের ইমামদের মাঝে হাজারো মাসআলায় ইখতেলাফ ছিল। কেউ কাউকে গালাগালিতো দূরের কথা, ন্যুনতম সমালোচনাও করেননি। পরষ্পর শ্রদ্ধা ও আন্তরিকতা ছিল শতভাগ। রেওয়ায়েত আছে, ইমাম শাফী রহ. ইমাম আজম আবু হানিফা রহ. এর যিয়ারতে গিয়ে, নিজের ইজতেহাদী মত বাদ দিয়ে হানাফী মাযহাব অনুসরণ করে মসজিদে নামাজ আদায় করেছেন; ইমাম আবু হানিফার প্রতি সম্মান দেখাতে গিয়ে। তাঁদের মধ্যে মতের বিরোধ ছিলো, কিন্তু আপসে বিচ্ছিন্নতা ছিল না।

“ইখতেলাফুল উলামায়ে রাহমাতুন” কথাটি সত্য। কিন্তু ইখতেলাফকে ইফতেরাকে নেয়া কী উচিৎ? ইখতেলাফ বা মতভেদ থাকতে পারে; ইখতেলাফের নামে ইফতেরাক বা বিচ্ছিন্নতা কারো কাম্য নয়। ইসলাম, আক্বীদা, দেশ ও জাতির এ দুঃসময়ে ছরে তাজ উলামায়ে কিরাম একটি কর্মসূচিতে ইখতেলাফ মাআল ইফতেরাক ছেড়ে ইত্তেফাক্ব বা ঐক্যবদ্ধ হওয়া চাই। বিশেষ করে সিলেটের উলামা হযরতগণ। আমরা অপেক্ষায় আছি আপনাদের সিদ্ধান্তের। আবারো ফিরে আসুক আমাদের অতীত ইতিহাস, ঐতিহ্য।
আল্লাহ আমাদের শুভবুদ্ধির উদয় ও সঠিক সিদ্ধান্ত নেয়ার তাওফিক দান করুন।

লেখক, সম্পাদক- কওমিকণ্ঠ

Comment

Share.

Leave A Reply