কুরআন প্রতিযোগিতা অবরুদ্ধ কাতারের প্রশংসনীয় উদ্যোগ

0

আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি ৫৭তম জাতীয় কুরআন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে কাতারে। কাতারের এনডাউমেন্ট এবং ইসলামী বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে ইতিমধ্যে ২৮ হাজার ছাত্র-ছাত্রী নাম নিবন্ধন করেছে। নিবন্ধন চলবে ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

নতুন প্রজন্মের নৈতিকতা শিক্ষা গঠন, আত্মোন্নয়ন এবং কুরআনের শিষ্টাচার অর্জনের উদেশ্যে আরব বিশ্ব দ্বারা অবরুদ্ধ দেশ কাতার কুরআনের এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে।

কাতারের স্কুলগুলোতে রয়েছে স্বাতন্ত্র কুরআনের ওয়েবসাইট। যে ওয়েবসাইটে তারা প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে নাম নিবন্ধন করতে পারবে।

এই প্রতিযোগিতা বিভিন্ন বয়সীদের জন্য অনুষ্ঠিত হবে। নার্সারি (সুরা ফাজর থেকে সুরা নাস), প্রাথমিক (সুরা আবাস থেকে সুরা নাস), উচ্চ মাধ্যমিক (সুরা জ্বিন থেকে সুরা নাস) শিক্ষার্থীদের জন্য অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া হিফজ বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য সুরা তালাক থেকে সুরা নাস, সুরা হাশর থেকে সুরা নাস এবং সুরা রহমান থেকে সুরা নাস পর্যন্ত প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।

কাতারের সরকারী ও বেসরকারি স্কুলের সব শিক্ষার্থীরাই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। কুরআন প্রতিযোগিতার এ আয়োজন চলছে দীর্ঘ ৫৭ বছর ধরে।

ইসলামের বিধান বাস্তবায়ন এবং নিজেদের জীবনকে কুরআনের আলোয় আলোকিত ও সুন্দর করতে এ প্রতিযোগিতা হবে অংশগ্রহণকারীদের জন্য অনেক উপকারী। নিঃসন্দেহে এ প্রতিযোগিতা ইসলাম ও মুসলমানদের জন্য প্রশংসনীয় উদ্যোগ।

Comment

Share.

Leave A Reply