মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হল ছারছিনার বার্ষিক মাহফিল

0

আল্লাহ তাআলার আলীশান দরবারে নিজেদের গোনাহ মাফে এবং মনের নেক আশা পূরণের আমিন আমিন ধ্বনিতে প্রকম্পিত হয় সন্ধ্যা নদীর তীর। ছারছিনা দরবারের ৩ দিনব্যাপী ফাল্গুনের বার্ষিক মাহফিল আজ বাদ জোহর আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হয়।

ছারছিনা দরবারের পীর, আমীরে হিজবুল্লাহ আলহাজ হজরত মাওলানা শাহ মোঃ মোহেব্বুল্লাহ বাদ জোহর হেদায়েতি বয়ানের পর এ মোনাজাত পরিচালনা করেন।

মোনাজাতের আগে বয়ানে তিনি সব ভক্ত-মুরিদানের উদ্দেশ্যে আল্লাহ ও তাঁর রাসুলের তরিকায় নিজেদেরকে পরিচালিত করার আহ্বান জানান।

গত তিন দিন ধরে ছারছিনা দরবারের মাহফিলে যে সব দ্বীনি বিষয়ে আলোচনা করা হয়েছে, তার ওপর যথাযথ আমল করারও নসিহত পেশ করেন। দরবার কর্তৃক প্রদত্ত নসিহতের আমল না করলে দূর-দূরান্ত থেকে আসা-যাওয়ায় কোনো ফায়দা হবে বলেও সতর্ক করেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, ‘আল্লাহ সত্য, তাঁর রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সত্য এবং ইসলামও সত্য ধর্ম। তাই সব সময় নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম প্রদর্শিত পথে ও মতে চলার কোনো বিকল্প নেই।’

পারস্পরিক ঝগড়া-বিবাদ-কলহ ছেড়ে দিয়ে এক মানুষ অপর মানুষের ভাই-এর মত আচরণ করারও আহবান জানান তিনি।

ফাল্গুনের এ বার্ষিক মাহফিলে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে অসংখ্য মানুষ আখেরি মোনাজাতে অংশ গ্রহণ করে। এছাড়াও দোয়া-মোনাজাতে শরিক হন জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ আসম ফিরোজ, সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমদ, সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সামসুল আলম টুকু, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের সংসদীয় কমিটির সভাপতি বিএইচ হারুন এমপি।

মোনাজাতের সময় ছারছিনা দরবারের বিশাল প্রাঙ্গণ ও সন্ধ্যা নদীর তীর আমিন আমিন ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে ওঠে। রোনাজারিতে ভারী হয়ে ওঠে মাহফিলের ময়দানসহ আশ-পাশের এলাকা। আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে ৩ দিনব্যাপী ফাল্গুনের এ বার্ষিক মাহফিলের সমাপ্তি হয়।

Comment

Share.

Leave A Reply