মুজাম্মিল হত্যা; ঈমান আক্বিদা সংরক্ষণ কমিটির মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান

0

মাসুম আল মাহদী, জৈন্তাপুর থেকে:  জৈন্তাপুর উপজেলার হরিপুর বাজার মাদরাসার মেধাবী ছাত্র শহিদ মুজ্জাম্মিল হত্যার খুনিদের ফাসি, আলেম উলামা ও তাওহিদি জনতার উপর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে আজ (১১মার্চ) রবিবার দুপুর ২টায় জৈন্তাপুর উপজেলা সদরে এক মানববন্ধন অনুষ্টিত হয়।
শায়খুল হাদিস আল্লামা আব্দুল কাদির বাগেরখালীর সভাপতিত্বে ও মাওলানা আব্দুল ওয়াদুদের পরিচালনায় এতে প্রধান অতিথি বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের কেন্দ্রীয় মহাসচিব ও হরিপুর বাজার মাদরাসার মুহতামিম মাও. শায়খ হিলাল আহমদ।
তিনি তার বক্তব্যে বলেন,
গত ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে আজ ১১মার্চ প্রায় দীর্ঘ ১৩দিন অতিবাহিত হলেও প্রশাসন উল্ল্যেখযোগ্য কোন আসামিকে গ্রেফতার করতে পারেনি।
প্রশাসনের প্রতি হুশিয়ারী উচ্চারণ করে তিনি আরো বলেন, আগামী ১৮মার্চ জাফলং আমির মিয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে মহাসমাবেশের আগ পর্যন্ত যদি প্রশাসন খুনিদের গ্রেফতার ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার না করে, তাহলে ১৮মার্চের মহাসমাবেশ থেকে প্রশাসনের বিরোদ্ধে কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবো।

সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জৈন্তাপুর উপজেলা চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন, ভাইস চেয়ারম্যান বশির উদ্দীন এম এ, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ফারুক আহমদ, সাবেক চেয়ারম্যান মৌলভী রহমতউল্লাহ, সাবেক চেয়ারম্যান কামাল উদ্দীন, দরবস্ত ইউ/পি চেয়ারম্যান বাহারুল আলম বাহার, চারিকাটা ইউ/পি চেয়ারম্যান শাহ আলম চৌধুরী তোফায়েল, মাওঃ নুরুল হক, বিশিষ্ট মুরব্বী আলাউদ্দীন, মাওঃ আব্দুল জব্বার, মাওঃ ওলিউর রহমান, মাওঃ হারুনুর রশিদ, মাওঃ আব্দুল হামিদ, মুফতী জিল্লুর রহমান, মাওঃ আব্দুল মান্নান, মাও: আব্দুল মালিক, মাওঃ জয়নাল আবেদীন, মাওঃ কবির আহমদ, মাওঃ সাঈদ আহমদ, জাকারিয়া মাহমুদ, মাওঃ খালেদ আহমদ প্রমুখ।

মানববন্ধন শেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে স্মারক লিপি প্রদান করা হয়।
স্মারক লিপিতে নিম্নোক্ত দাবী দাওয়া উপস্থাপন করা হয়।
১. মাদরাসার ছাত্র শহীদ মাওলানা মুজ্জাম্মিলকে নৃশংসভাবে হত্যাকারী খুনিদের গ্রেফতার করে দ্রুত বিচার আইনে সর্বোচ্চ শাস্তি ফাসি কার্যকর করতে হবে।
২. ভণ্ড মাজারপূজারী এখলাছুর রহমানগং কর্তৃক মাদরাসার শিক্ষক ছাত্রদের দাওয়াত করে নিয়ে পরিকল্পিত হত্যার চক্রান্তকারীদেরকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে।
৩. ষড়যন্ত্রমূলকভাবে আলিম উলামা, জনপ্রতিনিধি, মুরুব্বিয়ান ও ছাত্রদের উপর দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা নিঃশর্তভাবে অবিলম্বে প্রত্যাহার করতে হবে।
৪. ঈমান আক্বিদা সংরক্ষণ কমিটির আহত নেতাকর্মী, হরিপুর মাদরাসার মুহাদ্দিছ মাও: আব্দুস সালাম ও মৌলভী আব্দুল কাদিরসহ সকলের চিকিৎসা খরচ ও ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।
৫. ভণ্ড মাজারপূজারীদের ইসলামের নামে ইসলামের অপব্যাখা দানকারীদের অত্র এলাকায় কোন ধরনের সভা মাহফিলের অনুমতি প্রদান করা যাবে না।

Comment

Share.

Leave A Reply