ফেসবুক ইউটিউব গুগলে বিজ্ঞাপন দিলে কর দিতে হবে

0

ইন্টারনেট জগতে বা ডিজিটাল প্লাটফর্মে নতুন ক্ষেত্রে ভ্যাট বসালো জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। নতুন প্রজ্ঞাপন অনুসারে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইউটিউব ও অনুসন্ধান ইঞ্জিন গুগলে বিজ্ঞাপন দিলে কর দিতে হবে বিজ্ঞাপনদাতাকে। এই কর হবে ১৫ শতাংশ হারে।

এর আগে আগামী বাজেটে এ সংক্রান্ত উদ্যোগ নেয়ার কথা বলা হলেও এখন থেকেই এটি কার্যকর হবে। কারণ সোমবার দেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা দিয়ে চিঠি পাঠিয়েছে এনবিআর।

এ প্রসঙ্গে এনবিআরের বৃহৎ করদাতা ইউনিটের (এলটিইউ) কমিশনার মো. মতিউর রহমান বলেন, টিভি ও পত্রিকার মালিকসহ বিভিন্ন পক্ষের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে এ নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। ফলে চলতি অর্থবছর ২০১৭-১৮ থেকেই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে বিজ্ঞাপন দিলেই ১৫ শতাংশ মূল্য সংযোজন কর বা ভ্যাট দিতে হবে।

ব্যাংকগুলোয় পাঠানো চিঠির বিষয়ে তিনি বলেন, ফেসবুক, গুগল ও ইউটিউবে দেয়া বিজ্ঞাপনের অর্থ ব্যাংকের মাধ্যমে লেনদেন হলে তাদের ১৫ শতাংশ ভ্যাট কেটে রাখার জন্য আমরা চিঠি দিয়েছি। পরে তারা এই অর্থ আমাদের কাছে জমা দেবে। প্রাথমিকভাবে ব্যাংকগুলোই ভ্যাটের টাকা কেটে রাখবে।

তিনি বলেন, ব্যাংকিং চ্যানেলের বাইরে যেন বিজ্ঞাপনের অর্থ লেনদেন না হয়, সে ব্যাপারেও আমরা নজরদারি করব।

সম্প্রতি এনবিআরের চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া এক প্রাক বাজেট আলোচনায় বলেছিলেন, ফেসবুক ও গুগলের কাছ থেকে নয়, বরং বিজ্ঞাপনদাতা প্রতিষ্ঠানের ওপর কর বসানো হবে।

তিনি জানিয়েছিলেন, ফেসবুক ও গুগলের অফিস বাংলাদেশে না থাকায় প্রতিষ্ঠানগুলোর ওপর সরাসরি কর আরোপ করা যাচ্ছে না। তাদের অফিস বাংলাদেশে না হওয়া পর্যন্ত কর আরোপ করা যাবে না। কিন্তু এসব মাধ্যমে যারা বিজ্ঞাপন দেয়, তাদের ওপর তো কর আরোপ করতে পারব।

উল্লেখ, গত ৪ এপ্রিল এনবিআরের সম্মেলন কক্ষে সংবাদপত্রশিল্প মালিকদের সংগঠন নিউজপেপার ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (নোয়াব) এবং অ্যাসোসিয়েশন অব টেলিভিশন চ্যানেল ওনার্স (অ্যাটকো) নেতারা ফেসবুক, ইউটিউব ও গুগলকে করের আওতায় আনার কথা বলেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে এনবিআর আগামী বাজেটে এটি কার্যকর করা হবে বলে আশ্বাসও দেয়। তবে বাজেটের আগেই এটি কার্যকর হলো।

Comment

Share.

Leave A Reply