মাদক নিয়ন্ত্রণের নামে বিরোধী দল নির্মূলে নেমেছে সরকার : ড. আহমদ আবদুল কাদের

0

খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ও ২০ দলীয় জোটের শীর্ষনেতা ড. আহমদ আবদুল কাদের বলেছেন, সরকার মাদক নিয়ন্ত্রণের নামে বিরোধী দল নির্মূল অভিযানে নেমেছে। বিনা বিচারে মানুষ মারা হচ্ছে। অথচ চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীরা সরকারের ছত্রছায়ায় রয়েছে। উন্নয়নের কথা বলে পুরো ঢাকাকে খনাখন্দের নগরীতে পরিণত করা হয়েছে। যার জন্য রমজান মাসে সাধারণ মানুষকে দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। রমজানকে কেন্দ্র করে অসৎ ব্যবসায়ীরা নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের দাম বাড়িয়েছে লাগামহীন।

দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে চরম ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে সরকার। রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন অঞ্চলে গ্যাস ও বিদ্যুতের দূস্প্রাপ্যতা রোজাদারদের জন্য ভয়াবহ কষ্টের কারণ হিসেবে দাঁড়িয়েছে। কোটা সংস্কারের নায্য দাবির ব্যাপারেও প্রতারণার আশ্রয় নিয়েছে সরকার। উপরন্তু আন্দোলনকারীদের নানাভাবে হয়রানি করা হচ্ছে। দেশ ও জাতির এই ক্রান্তিলগ্নে ছাত্র সমাজকে এগিয়ে আসতে হবে।

আজ ২৮ মে ২০১৮, সোমবার, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিসের উদ্যোগে বন্ধুপ্রতিম ছাত্র সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও সাংবাদিকদের সম্মানে আয়োজিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন ড. কাদের । জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জ-৩ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত উক্ত ইফতার মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইলিয়াস আহমদ। সেক্রেটারি জেনারেল এইচএম খালেদ আহমদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উক্ত ইফতার মাহফিলে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, ইসলামী ছাত্র মজলিসের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি ও খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব এডভোকেট মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসাইন, সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক মুহাম্মদ আবদুল জলিল, এডভোকেট তাওহীদুল ইসলাম তুহিন, মাওলানা আজিজুল হক। সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের উপস্থিত ছিলেন রিলিজিয়ার্স রিপোর্টারস ফোরাম (আরআরএফ) সভাপতি মোহাম্মদ ফয়েজ উল্লাহ ভূঁইয়া, বাংলাদেশ ইসলামী লেখক ফোরামের সভাপতি মুহাম্মদ জহির উদ্দিন বাবর, সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ মনিরুল ইসলাম, ইনসাফ টোয়েন্টি ফোর ডটকম সম্পাদক সাইয়েদ মাহফুজ খন্দকার, পাক্ষিক সবার খবর সম্পাদক মুহাম্মদ আবদুল গাফফার। বন্ধুপ্রতিম ছাত্র সংগঠনের নেতৃবৃন্দের মধ্যে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের দপ্তর সম্পাদক আবদুস সাত্তার পাটোয়ারী, ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের সেক্রেটারি জেনারেল এম. হাসিবুল ইসলাম, ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় প্রকাশনা সম্পাদক রাজিবুল হাসান বাপ্পি, মুসলিম ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি এইচএস আসাদ খাঁন, জাতীয় ছাত্র সমাজ (কাজী জাফর) সভাপতি কাজী ফয়েজ আহমদ, ছাত্র কল্যাণ পার্টি সভাপতি শেখ এনামুল হাসান তানিম, ছাত্র জমিয়তের কেন্দ্রীয় সভাপতি তোফায়েল গাজালী, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র সমাজের কেন্দ্রীয় সভাপতি মুহাম্মদ নুরুজ্জামান, জাগপা ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি রাকিবুল ইসলাম রুবেল, বাংলাদেশ ছাত্র মিশনের সভাপতি সালমান খান বাদশা, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মোহাম্মদ মিলন, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র খেলাফতের সেক্রেটারি জেনারেল মুহাম্মদ আবুল হাসেম, আঞ্জুমানে তালামিযে ইসলামীয়ার কেন্দ্রীয় অফিস সম্পাদক মোহাম্মদ মারুফ হোসাইন, ছাত্র মিশনের (অপরাংশ) সভাপতি কামরুল ইসলাম সুরুজ। ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় বিজ্ঞান সম্পাদক নাজমুস সায়াদাত, ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় অর্থ সম্পাদক মুহাম্মদ আবদুল জলিল, ইসলামী ছাত্র খেলাফতের সাংগঠনিক সম্পাদক মুহি উদ্দিন। ইফতার মাহফিলে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী ছাত্র মজলিসের কেন্দ্রীয় অফিস ও প্রচার সম্পাদক মুহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন, কেন্দ্রীয় বায়তুলমাল ও প্রকাশনা সম্পাদক মনির হোসাইন, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য ও রাজশাহী ও রংপুর জোন তত্ত্বাবধায়ক মনসুরুল আলম মনসুর, কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ সভাপতি মুহাম্মদ রমজান আলী, কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তর সভাপতি মুহাম্মদ আবদুল গাফফার, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সভাপতি মুহাম্মদ এনায়েতুল্লাহ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা সেক্রেটারি মুহাম্মদ উসমান বিন সালমান প্রমুখ।

Comment

Share.

Leave A Reply