ক্রসফায়ারের নামে ভয়াবহ মানবাধিকার লংঘন হচ্ছে : মান্না

0

অনির্বাচিত এই সরকার সম্ভাব্য সব উপায়ে মানুষের জীবনকে দুর্দশাগ্রস্ত করে নিজেদের আখের গোছাচ্ছে বলে অভিযোগ দেশের বাম রাজনৈতিক দলগুলোর নেতাদের। তারা মনে করেন, সংবিধানের গণতান্ত্রিক সংস্কারে জাতীয় ঐক্য গড়ে তোলা জরুরি। শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর বিএমএ মিলনায়তনে গণসংহতি আন্দোলনের উদ্যোগে এক সভায় বাম নেতারা এসব কথা বলেন।

আলোচনায় বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, জনগণের সামনে ঐক্যবদ্ধ কর্মসূচি হাজির করা এখন গণতান্ত্রিক শক্তির সামনে একমাত্র করণীয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। বাসদ সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান বলেন, বৃহত্তর গণতান্ত্রিক ও প্রগতিশীল শক্তিগুলোকে সঙ্গে নিয়ে দেশকে রক্ষার কর্মসূচি হাজির করতে না পারলে বাংলাদেশের জনগণকে এই সংকটে আরও বহুকাল কাটাতে হবে।

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ক্রসফায়ারের নামে এই ভয়াবহ মানবাধিকার লংঘন দেখিয়ে দেয় আমরা কতটা গণতন্ত্রহীনতার কাল কাটাচ্ছি। গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী বলেন, আইন কানুন এখন বর্তমান সরকার তামাশায় পরিণত করেছে। গণসংহতি আন্দোলনের ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী সমন্বয়কারী আবুল হাসান রুবেল মুক্তিযুদ্ধে আবদুস সালামের ভূমিকা তুলে ধরে বলেন, ‘তিনি বাংলাদেশের সংবিধানের মাঝেই যে স্বৈরতান্ত্রিক ক্ষমতা কাঠামোর উৎস নিহিত আছে, তা তুলে ধরেছিলেন, সেটাকে গণতান্ত্রিক সংগ্রামের কর্মসূচির অংশ করেছিলেন।’

সভাপতির বক্তব্যে দলের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি বলেন, আজকে যেভাবে নির্বাচনের নামে প্রহসন, ভোট ডাকাতি কিংবা ব্যাংক লুট, উন্নয়নের নামে জনগণের অর্থ চুরি অথবা ব্যাংক খাত লোপাট হচ্ছে তা অদৃষ্টপূর্ব। ফ্যাসিবাদী এই অনির্বাচিত সরকার সম্ভাব্য সব উপায়ে মানুষের জীবনকে দুর্দশাগ্রস্ত করে নিজেদের আখের গোছাচ্ছে। এর বিরুদ্ধে সংগ্রামকে শক্তিশালী করতে হলে সংবিধানের গণতান্ত্রিক সংস্কারের লক্ষ্যে একটা জাতীয় ঐক্য গড়ে তোলাই জনগণের সামনে একমাত্র করণীয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রয়াত নেতার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে জোনায়েদ সাকি সেই সংগ্রামকে এগিয়ে নেয়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

সংগঠনের প্রথম নির্বাহী সমন্বয়কারী অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম এর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ‘বিদ্যমান সংকট ও গণরাজনীতির করণীয়’ শীর্ষক আলোচনা সভাটি অনুষ্ঠিত হয়। প্রয়াত নেতার স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন ও তার ছবিতে বিভিন্ন রাজনৈতিক ও গণসংগঠনের পক্ষে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

উল্লেখ্য, আবদুস সালাম গত বছরের ২৬ মে মৃত্যুবরণ করেন। তাকে নিয়ে লিখিত একটি রচনায় বলা হয়েছে, আবদুস সালামের অনুসন্ধান আর বোঝাপড়া তাকে বাংলাদেশের লড়াইয়ের পথ অনুসন্ধানে, বাংলাদেশের ইতিহাসের ভেতরের শেকড় খুঁজতে অনুপ্রাণিত করেছে।

Comment

Share.

Leave A Reply