সঠিকভাবে হজ পালনে প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই : ধর্মমন্ত্রী

0

ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান বলেছেন, সঠিক ও সুন্দরভাবে হজ পালনে ধর্মীয় ও আনুষাঙ্গিক বিষয়ে প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই।

বুধবার (৬ জুন) রাজধানীর আশকোনা হজক্যাম্পে ২০১৮ সালে হজে গমনেচ্ছুদের প্রশিক্ষণ দেয়ার লক্ষ্যে জেলা পর্যায়ের প্রশিক্ষকদের প্রশিক্ষণ (টিওটি) কর্মশালায় তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, জেলা পর্যায়ে হজ প্রশিক্ষক তৈরির মাধ্যমে হজযাত্রীদের প্রশিক্ষণের আওতায় আনা হবে। এর মাধ্যমে সরকার এ বছর একটি উন্নত হজ ব্যবস্থাপনা উপহার দিতে সক্ষম হবে।

মন্ত্রী উপস্থিত প্রশিক্ষণার্থীদের লব্ধ জ্ঞানের আলোকে হজ যাত্রীদের সঠিকভাবে প্রশিক্ষণ দেয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, প্রশিক্ষণ হজ যাত্রীদের হজ পালন সহজ করে তুলবে। উন্নত হজ ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে এ প্রশিক্ষণ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

ধর্মমন্ত্রী আরও বলেন, ২০১৮ সালের হজ ব্যবস্থাপনাকে আরও উন্নত করার লক্ষ্যে চলতি বছরের শুরুতেই হজ ক্যালেন্ডার প্রণয়ন করা হয়েছে। সে আলোকে ধর্ম মন্ত্রণালয় করণীয় সমূহ পর্যায়ক্রমে সুন্দরভাবে সম্পাদন করছে।

মন্ত্রী বলেন, এ বছর সরকারি-বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজ করতে যাবেন। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় যাবেন সাত হাজার ১৯৮ জন। ইতোমধ্যে সব হজযাত্রীর নিবন্ধন সম্পন্ন হয়েছে। সরকারি ব্যবস্থাপনায় বাড়ি ভাড়া সম্পন্ন হয়েছে। বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় বাড়ি ভাড়া চলছে। ভিসার লজমেন্টের কাজ শুরু হয়েছে। বিমান শিডিউলও পাওয়া গেছে। অনেক এজেন্সি ইতোমধ্যে বিমানের টিকিটের জন্য বুকিং দিয়েছে। অর্থাৎ অন্যান্য বছরের তুলনায় সুষ্ঠু হজ ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে মন্ত্রণালয় এগিয়ে রয়েছে।

ধর্ম মন্ত্রণালয় আয়োজিত এ প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, ধর্ম মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বি এইচ হারুন এমপি, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আনিছুর রহমান, হজ এজেন্সিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (হাব) মহাসচিব সাহাদাত হোসেন তসলিম প্রমুখ। সভাপতিত্ব করেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (হজ) মো. হাফিজ উদ্দিন।

উল্লেখ্য, চারদিনব্যাপী (৬-৯ জুন) জেলা পর্যায়ের প্রশিক্ষকদের এ কর্মশালায় প্রথম দিনে ১৬ জেলার প্রশিক্ষক টিম অংশ নেয়। প্রতি জেলায় জেলা প্রশাসকের একজন প্রতিনিধি, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক বা তার প্রতিনিধি, জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের একজন প্রতিনিধি, দুইজন মুফতি/মাওলানা এবং হাবের একজন প্রতিনিধিসহ মোট ছয় জনের সমন্বয়ে টিম গঠন করা হয়েছে। প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত এ টিম স্ব-স্ব জেলায় আগামী ২১-৩০ জুনের মধ্যে হজযাত্রীদের হজ পালনের বিধি-বিধান, হজে গমন, স্বাস্থ্য সচেতনতাসহ আনুষাঙ্গিক বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেবেন।

Comment

Share.

Leave A Reply