শিয়া রাষ্ট্র ইরান মুসলমানদের প্রকৃত বন্ধু?

0

আলী আজম ::
ইরান। সময়ের আলোচিত একটি প্রভাবশালী দেশের নাম। অনেকের কাছে এটি একটি মুসলিম রাষ্ট্র হিসেবে পরিচিত। আবার অনেকের কাছে স্রেফ শিয়া রাষ্ট্র তথা নামে মুসলিম হলেও বাস্তবে তাদের আক্বীদা বিশ্বাস কিছুতেই প্রকৃত মুসলিমের পর্যায়ে পড়ে না। কারণ শিয়া গোষ্ঠী প্রকাশ্যে ইসলামের প্রথম তিন খলিফাকে মানে না। তাদের সমালোচনা করে। সাহাবায়ে কেরামদের সমালোচনা করে। তারা স্রেফ হযরত আলী রাদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুকে খলিফা হিসেবে মানে। এছাড়াও তাদের অনেক ভুল আক্বীদা বিশ্বাস রয়েছে। যে কারণে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের উলামায়ে কেরাম শিয়া গোষ্ঠীকে প্রকৃত মুসলিম মনে করেন না। শিয়াদেরকে মুসলিম লেবাসধারী কাফিরদের দালালই মনে করেন।

শিয়া সম্প্রদায়ের অপতৎপরতা নিয়ে এক সময় আহলে হক্ব তথা কওমী উলামায়ে কেরাম খুবই সরব ছিলেন। শিয়া গোষ্ঠীর নানান ষড়যন্ত্র, চক্রান্ত থেকে ধর্মপ্রাণ সাধারণ মুসলমানকে বাঁচাতে শিয়া তৎপরতা বিরোধী বই পুস্তক লেখালেখি থেকে শুরু করে সেমিনার, বক্তৃতা ইত্যাদি গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলি খুব নিষ্ঠার সাথে আঞ্জাম দিয়েছিলেন। ফলে তখন শিয়া তৎপরতা মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারেনি। কিন্তু পরবর্তীতে শিয়া গোষ্ঠী সংক্রান্ত লেখালেখি, বয়ান বক্তৃতা একেবারে বন্ধ হয়ে যায়। যার ফলে শিয়া তৎপরতা বৃদ্ধি পেতে থাকে দেশে। বর্তমান সময়ে উদ্বেগজনক হারে সব জায়গায় শিয়া তৎপরতা বাড়ছে দেখেও সচেতন আলেম সমাজ শিয়া সম্প্রদায় নিয়ে নীরব ভূমিকা পালন করা বেশ রহস্যজনকই বটে।

শিয়া গোষ্ঠী কারা? যারা ইরানে অসংখ্য শিয়া বিরোধী সুন্নি উলামায়ে কেরামকে হত্যা করেছে। যারা ইসলামের লেবাস ধারণ করে প্রতিনিয়ত ইসলামের ক্ষতিই করে যাচ্ছে। যারা ইসলামের বন্ধু সেজে তলেতলে ইসলামের চিরশত্রু কাফির, মুশরিক, ইহুদীদের পদলেহন করছেই। যারা গোটা মধ্যপ্রাচ্যজুটে অশান্তির দাবানল ছড়িয়ে দিয়েছে। যারা সিরিয়াতে প্রতিনিয়ত সুন্নিদের হত্যা করে চলেছে। ইরাক লিবিয়া আফগান ও ইয়েমেনে অশান্তি সৃষ্টির মূলে এই শিয়া চক্রই বড়ো ভূমিকা পালন করছে। অথচ এর পরেও অনেকের কাছে শিয়া সম্প্রদায় প্রকৃত মুসলিম। শিয়া সম্প্রদায় নিয়ে কিছু বললে অনেকের গা জ্বলে! অনেকে বলে মুসলমানদের দুর্দিনে ফিরকাবৃত্তি না করা উচিৎ। তারা জানেনা শিয়াদের আসল পরিচয়।

ভালো করে চিনে নিন শিয়াদের। শিয়ারা হলো ইহুদী ও আমেরিকার পা চাটা গোলাম। ইহুদী ও আমেরিকানরা সর্বদা ইরান নিয়ে কথা বলে। হুমকি ধামকি দেয়। এই করবে সেই করবে বলে। অথচ বাস্তবে তারা ইরানে আজ পর্যন্ত একটা ঢিলও মারেনি। ইরান নিয়ে ইহুদী ও আমেরিকার এতো হম্বিতম্বির কারণ কী জানেন? কারণ হলো সাধারণ মুসলমানদের তারা এটা বুঝাতে চায় যে, তারা ইরানের অগ্রগতি চায় না। ইরান বিশ্ব শান্তির জন্য হুমকি ইত্যাদি ফাঁকা বুলি প্রসব করে ইরানের সাথে যে তাদের গোপন সম্পর্ক বিদ্যমান তারা তা গোপন করতে মরিয়া। মূলত এটি আইওয়াশ। বাস্তবে ইহুদ আমেরিকা ও ইরানের সম্পর্ক খুবই গভীর ও ভ্রাতৃত্বপূর্ণ। তারা সুন্নি মুসলিমদের নিঃশেষ করার ক্ষেত্রে সর্বদা একতাবদ্ধ।

শিয়া অপতৎপরতার ব্যাপারে সতর্ক হবার এখনি সময়।

Comment

Share.

Leave A Reply