সৌদিআরবে আলেম মনীষা নির্যাতন; উৎকণ্ঠিত মুসলিমবিশ্ব

0

আইনুল হক ক্বাসিমী ::

আমেরিকার পা-চাটা গোলাম সৌদিআরব শাইখ সালমান আল আওদাহ, শাইখ আওয আল কারনি ও শাইখ আলি আল উমারির শিরচ্ছেদ করার ঘৃণ্য পাঁয়তারায় লিপ্ত। এই তিন ইসলামি চিন্তাবিদের শিরচ্ছেদ করে তাগুত আ-লে সৌদ সৌদি জনগণের মুখে কলুপ এঁটে দিতে চাচ্ছে! তাগুত আ-লে সৌদের এই ঘৃণ্য পাঁয়তারা সম্পর্কে টের পেয়ে গেছে সৌদি জনগণ। ইতিমধ্যেই তাদের অন্তরাত্মা কেঁপে উঠেছে। এক অজানা ভীতি আর শঙ্কায় কাটছে তাদের প্রতিটা মুহূর্ত! এখন উৎকণ্ঠিত পুরো আরবজাতি। ভয়ার্ত গোটা মুসলিমবিশ্ব।

গত বুধবার তাগুত সৌদিআরবের কথিত শাস্তিমূলক আদালতের অধীনে শাইখ সালমান আল আওদাহর গোপন বিচার সংঘটিত হয়। সরকারপক্ষ তার বিরুদ্ধে সাঁইত্রিশটি ভুয়া সন্ত্রাসী অভিযোগ আরোপ করার পর; শাস্তিস্বরূপ তাঁর শিরচ্ছেদ করার আবেদন করে! তদ্রুপ পৃথক পৃথক গোপন বিচারে একই অভিযোগে শাইখ আওয আল কারনি ও শাইখ আলি আল উমারিরও শাস্তিস্বরূপ শিরচ্ছেদের আবেদন পেশ করে! শাইখ সালমান আল আওদাহর ছেলে আবদুল্লাহ আল আওদাহর সূত্রমতে, সৌদি আদালত শাইখ সালমান আল আওদাহর বিচার একমাসের জন্য মুলতবি ঘোষণা করে। আগামী মাসে তাঁর বিচার আবারও অনুষ্ঠিত হবে।

উল্লেখ্য, প্রচণ্ড মানসিক চাপ ও অবহেলার শিকার হয়ে শাইখ আবদুল আজিজ আত তারিফির শারীরিক অবস্থা খুবই নাজুক। আলহায়ির কারাগারের হাসপাতালে তাঁকে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে। অপরদিকে প্রখ্যাত দাঈ শাইখ মুহাম্মদ বিন আবদুর রহমান আল আরিফির সবধরনের বক্তৃতা ও দাওয়াহর ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তাগুত সৌদি প্রশাসন। শাইখ আরিফি এখন বাক-অবরুদ্ধ! তদ্রুপ আরও অনেককেই সংকীর্ণতার মধ্যে রাখা হয়েছে।

পুনঃউল্লেখ্য, একে একে সৌদিআরবের প্রায়সকল আলেম, দাঈ, রাজনীতিক ও ইসলামি চিন্তাবিদ কারাবন্দি বা নজরবন্দি। শুধুমাত্র ‘হক’ বলা বা ‘হক’র পক্ষে অবস্থান নেয়ার কারণে। তাঁদের কেউ কেউ কারা-হাসপাতালে শয্যাশায়ী, আবার কেউ কেউ খড়গের নিচে মৃত্যুর জন্য প্রহর গণনাকারী! কিন্তু মসজিদে হারামের ইমাম ও খতিব ভাড়াটে শাইখ আবদুর রহমান আস সুদাইস এখন অবধি রাজকীয় আড়ম্বরপূর্ণ শান-শওকত আর বিপুল ঐশ্বর্যের মধ্যে তাগুত আ-লে সৌদের পা চেটেই যাচ্ছেন! বিশ্বকে শান্তির বন্দরের দিকে নিয়ে গমনকারী (!) ট্রাম্প ও সালমানের জুতো বহন করেই চলছেন!

সূত্র: معتقلي الرأى- টুইটার একাউন্ট

Comment

Share.

Leave A Reply