কওমি সনদ বিলে স্বাক্ষর করলেন রাষ্ট্রপতি

0

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ  আল-হাইআতুল উলইয়া লিল-জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশ-এর অধীনে কওমী মাদরাসা সমূহের দাওরায়ে হাদিস (তাকমীল) এর সনদকে মাস্টার্স ডিগ্রি (ইসলামিক স্টাডিজ ও আরবি) এর সমমান প্রদান বিল-২০১৮সহ সংসদের ২২তম অধিবেশনে পাস হওয়া আরো ৬টি বিলে স্বাক্ষর করেছেন।

আজ ৮ অক্টোবর সংসদ সচিবালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয় ।

রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষরের পর যেকোনো বিল আইন হিসেবে গণ্য হয়। এখন এটি গেজেট আকারে প্রকাশ করবে সরকার।

এছাড়াও গত মাসে দশম জাতীয় সংসদের ২২তম অধিবেশনে পাস হওয়ার আরো ৬ বিলে স্বাক্ষর করেন রাষ্ট্রপতি।

স্বাক্ষর করা বিল গুলো হলো- ডিজিটাল নিরাপত্তা বিল-২০১৮, সড়ক পরিবহন বিল-২০১৮, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ বিল, ২০১৮, পণ্য উৎপাদনশীল রাষ্ট্রায়ত্ত্ব শিল্প প্রতিষ্ঠান শ্রমিক (চাকরির শর্তাবলী) বিল- ২০১৮,বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্ট বিল,২০১৮ ও কমিউনিটি ক্লিনিক স্বাস্থ্য সহায়তা ট্রাস্ট বিল-২০১৮।

গত ১৯ সেপ্টেম্বর বুধবার জাতীয় সংসদে আল হাইয়াতুল উলিয়া লিল জামিয়াতিল কাওমিয়া বাংলাদেশের অধীন কওমি মাদরাসা সমূহের দাওরায়ে হাদিস তাকমিলের সনদকে মাস্টার্স ডিগ্রি (ইসলামিক স্টাডিজ ও আরবির সমমান প্রদান) বিল ২০১৮  বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসরাম নাহিদ। স্পিকার শিরিন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশনে বিলটি পাসের আগে জনমত যাচাই ও বাছাই কমিটিতে পাঠানোর প্রস্তাব কণ্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়।

এর আগে  ১৩ আগস্ট মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই আইনটি চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়। আর সেদিনই বর্তমান সংসদের ২২তম অধিবেশনে বিলটি তোলার কথা জানানো হয়।

২০১৭ সালের ১১ এপ্রিল কওমী মাদ্রাসার সর্বোচ্চ সনদকে ইসলামিক স্টাডিজে স্নাতকোত্তর ডিগ্রির স্বীকৃতির ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেদিন গণভবনে আল্লামা শাহ আহমদ শফীসহ দেশের শীর্ষ প্রায় ৩০০ শত আলেম উপস্থিত ছিলেন।

এর দুই দিন পর কওমি মাদরাসা সর্বোচ্চ সনদকে সাধারণ শিক্ষার স্নাতকোত্তর ডিগ্রির স্বীকৃতি দিয়ে আদেশ জারি করে সরকার। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপনের আলোকে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) উচ্চপর্যায়ের আলেমদের সঙ্গে দফায় দফায় বসে এ সংক্রান্ত আইনের খসড়া চূড়ান্ত করে।

Comment

Share.

Leave A Reply