শিক্ষকরাই আদর্শ সমাজ বিনির্মাণের কারিগর : খতিব তাজুল ইসলাম

0

কওমিকণ্ঠ : শিক্ষা ও শিক্ষকের মর্যাদা একে অপরের পরিপূরক এবং বর্তমান সময়ে অতিগুরুত্বপূর্ণ বিষয়। একজন শিক্ষক সমাজের বিবেক জাগিয়ে তুলেন, একজন ছাত্রের সুপ্ত প্রতিভাকে জাগ্রত করেন। শিক্ষক হলেন আদর্শ সমাজ বিনির্মাণের কারিগর, তিনি সমাজ এবং জাতির প্রয়োজনে আলোর দিশারী হিসেবে পথ দেখান।

মঙ্গলবার (৬ নভেম্বর) দুপুরে জামেয়া নুরানিয়া ইসলামিয়া বোয়ালজুড়ের ক্যাম্পাস ও বিভিন্ন ক্লাস পরিদর্শন শেষে জামেয়ার অফিস মিলনায়তনে ম্যানেজিং কমিটি ও শিক্ষকদের সাথে মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন কওমি মাদরাসা শিক্ষা সহযোগিতা আন্দোলন কমাশিসা’র সভাপতি, জামেয়ার প্রধান পরিচালক, মাদরাসাতুন নূর আল-ইসলামিয়া যুক্তরাজ্যের প্রিন্সিপ্যাল, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, লেখক ও গবেষক খতিব মাওলানা তাজুল ইসলাম।

তিনি আরও বলেন, পিতা-মাতার পরই শিক্ষকের স্থান। পিতা-মাতা সন্তানকে জন্ম দেন কিন্তু তাকে যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তোলেন শিক্ষক।ইসলাম ধর্মে শিক্ষকদের সর্বোচ্চ মর্যাদা দেয়া হয়েছে। পৃথিবীর যে দেশ শিক্ষকদের যতো বেশি মর্যাদা দিয়েছেন সেই দেশ সভ্যতা ও জ্ঞান-বিজ্ঞানে ততো বেশি উন্নত।

ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আলহাজ আব্দুল মতীনের সভপতিত্বে ও প্রধান শিক্ষক ইলিয়াস মশহুদের পরিচালনায় সভার শুরুতে পবিত্র কুরআন তেলাওয়াত করেন জামেয়ার শিক্ষক কারী মাওলানা আব্দুল্লাহ মামুন।
প্রধান পরিচালক খতিব মাওলানা তাজুল ইসলামের সাথে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় অন্যন্যের মধ্যের উপস্থিত ছিলে ম্যানেজিং কমিটির সদস্য রফিক আহমদ, আনহার আলী, সাবেক শিক্ষক মাওলানা মুনাওয়ার আলী, জামেয়ার হিসাব রক্ষক কারী মাওলানা লুৎফুর রহমান, জামেয়ার শিক্ষক আহমদ শফি জুনাইদ, হোসেন আহদ লিমন, হাফিজ মঈনুল ইসলাম মাবরুর, মাওলানা নোমান আহমদ, শিক্ষিকা রোহেনা বেগম, জেসমিন আক্তার, আয়শা আক্তার প্রমুখ।

Comment

Share.

Leave A Reply