টঙ্গীর ইজতেমা ময়দানে হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন আল্লামা শাহ আহমদ শফি

0

কওমিকণ্ঠ : দাওয়াতে তাবলিগের বিশ্ব ইজতেমার প্রস্তুতি জোড়কে কেন্দ্র করে ঢাকার টঙ্গির মাঠে মাওলানা সাদ এর অনুসারীরা গতকাল (রবিবার) নিরহ নিরস্ত্র তাবলীগী সাথি ও কুরআন-সুন্নাহর জ্ঞানঅন্বেষণকারি মাদরাসা ছাত্রদের উপর ইতিহাসের জঘন্যতম হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন শায়খুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমদ শফী।

আল্লামা আহমদ শফী আগামিকাল সোমবার সকাল ১০টায় দেশের প্রতিটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর স্মারকলিপি প্রদান, বিকেল ৪টায় শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ মিছিল এবং প্রত্যেক মসজিদে দোয়ার কর্মসূচি পালনে সর্বস্তরের আলেম উলামা, তাবলীগী সাথী ও ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের প্রতি আহবান জানান।

আজ রোববার বিকেল ৫টায় আল্লামা আহমদ শফী এর কার্যালয়ে এক জরুরী বৈঠক শেষে এ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

বৈঠকে হাটহাজারী মাদরাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস আল্লামা শেখ আহমদ, আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী, মুফতি জসীমুদ্দীন, মাওলানা ওমর, মাওলানা ইয়াহয়া, মাওলানা ফোরকান আহমদ, মাওলানা নূরুল ইসলাম, মাওলানা মুহাম্মাদ আনাস মাদানীসহ তাবলীগের স্থানীয় মুরব্বি ও সাথীগণ উপস্থিত ছিলেন।

আল্লামা আহমদ শফী বলেন, এ ধরনের ন্যাক্কারজনক ঘটনা দেশের ইতিহাসে ঘটেনি। আমি মনে করি,এটি সম্পূর্ণ পূর্বপরিকল্পিত ও শান্তিপূর্ণভাবে বিশ্ববাপি দাওয়াতের কাজকে স্তব্ধ করা এবং মুসলমাদের মাঝে বিবেদ বিশৃংখলা সৃষ্টির জন্য এ হামলা চালানো হয়।

সম্মিলিত উলামায়ে কেরাম মাওলানা সাদের অনুসরণ বৈধ নয় বলে ফতোয়া দেয়ার পরও কুরআন সুন্নাহর মনগড়া অপব্যাখ্যাকারি, আম্বিয়া ও সাহাবাদের শানে কটূক্তকারি , নেজামুদ্দিনের স্বঘোষিত আমির মাও সাদের ইতাআতের নামে আক্রমণকারিরা হামলা চালিয়েছে। তারা যে ষড়যন্ত্রকারী ইতোমধ্যে বিষয়টি সবার কাছে পরিষ্কার হয়ে গেছে।

তাদের ষড়যন্ত্র বন্ধ ও টঙ্গী মাঠে পূর্বের মতো শান্তিপূর্ণ পরিবেশ ফিরিয়ে আনা এবং জোড়, বিশ্ব ইজতেমার পূর্ব ঘোষিত তারিখ অনুযায়ী শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হতে সরকার, প্রশাসনের দেশবাসির প্রতি তিনি আহ্বান জানান।

Comment

Share.

Leave A Reply