মনস্তাত্বিক লড়াইয়ে আমাদের জিততে হবে

0
সৈয়দ শামছূল হুদা ::

আমরা বড় বড় শোডাউন দেখে আমাদের আসল কামের কথা ভুলে যাই। হাজার হাজার তুলাবা আর পাঞ্জাবী পরা লোকদের মিছিল মানেই আমাদের শক্তির মহড়া নয়। তৌহিদী জনতার ব্যানারে এ রকম শোডাউন মাঝে মাঝেই আমরা করে থাকি। সাদ্দাম হোসেনের পক্ষে, মোল্লা ওমরের পক্ষে কম মিছিল-শোডাউন হয়নি। ফলাফল খুব ভালো হয়েছিল, মনে হয় না। তারপরও এটার দরকার আছে। এর পাশাপাশি দরকার, যাদের বিরুদ্ধে লড়াই করছি, তাদেরকে মনস্তাত্বিকভাবে পরাজিত করা।

১লা ডিসেম্বর ইজতেমা ময়দানে যা হয়েছে এর প্রকৃত চিত্র তুলে ধরতে গেলে ভয়াবহ চিত্র উঠে আসবে। ইতিমধ্যেই কিছু কিছু প্রকাশ হতে শুরু করেছে। যা লোমহর্ষক। নির্মম। শাপলা চত্বরের নির্মমতাকেও তা হার মানায়। আঘাতকারীরা সুন্নতি লেবাস পরেই এসেছিল। সাথে নিয়ে এসেছিল একরাশ ঘৃণা। এই গোষ্ঠীটাকে অবহেলা করা ঠিক হবে না। এদের ভিত অনেক মজবুত।

এখন আমাদের অন্যতম কাজ হলো, প্রতিটি মসজিদ ওয়ারি এদেরকে চিহ্নিত করা। এদের অপকর্মগুলো জনসাধারণের সামনে দলীল ভিত্তিক তুলে ধরা। এইক্ষেত্রেও আমরা অনেক সময় দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিই। আমাদের কিছু ভাই আছে, জানা নাই, শোনা নাই, মুখস্থ তোতাপাখির মতো মন্তব্য করা শুরু করে। কথায় কথায় কাফের, মুশরেক, ইহুদীদের দালাল বলতে শুরু করে।এতে প্রতিপক্ষ আরো বেশি শক্তিশালী হয়।

সাদ সাহেবের অনুসরণ করতে গিয়ে এদেশের একশ্রেণির মানুষ অন্ধ হয়ে গেছে। তাদের মধ্যে উগ্রতা কী পরিমান তা আমরা টঙ্গীর মাঠে প্রত্যক্ষ করেছি। এই উগ্রতার স্বরূপ জনগণের সামনে তুলে ধরতে হবে। বাস্তবভিত্তিক, যৌক্তিক ও দলীলভিত্তিক। আমাদেরকে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করার জন্য কথা বলা শিখতে হবে।

আল্লামা বাবুনগরী সাহেব এই আহবানটাই আজ জানিয়েছেন। তৃণমূলে এদেরকে চিহ্নিত করে ফেলতে হবে। এই মেহনতের লোকদের কাছে উগ্রবাদি লোকদের চরিত্র উম্মোচন করে দিতে হবে। এতদিন যথেষ্ট পরিমানে ওযাহাতি সম্মেলন করা হয়েছে। সাধারণ মানুষও মোটামুটি বিষয়টির জটিলতা বুঝতে পেরেছে। এখন সময় এসেছে অন্য পদ্ধতিতে সাদ সাহেবের অন্ধ অনুসারীদের উগ্র রূপটা টঙ্গীর চিত্রটা ধারণ করে জনমনে তুলে ধরা। প্রয়োজনে লক্ষ লক্ষ লিফলেট তৈরী করতে হবে।

তাবলীগের সাধারণ সাথীদের কাছে এই আহবান পৌঁছে দিতে হবে, আপনারা সারা জীবন যে তাবলীগ করেছেন, তার উদ্দেশ্য কী সাদ সাহেবকে খুশি করা? নাকি আল্লাহর তায়ালার রেজামন্দি হাসিল করা? কোনটি ঠিক? যদি আল্লাহকে খুশি করাই উদ্দেশ্য হয়, তাহলে উলামাদের মতামতের বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই।

Comment

Share.

Leave A Reply