সাম্প্রদায়িক শক্তিকে রুখতে ঐক্যবদ্ধভাবে যুদ্ধ করতে হবে : মাহমুদ মাদানী

0

অনলাইন ডেস্ক : ভারতে রন্ধ্রে রন্ধ্রে গজিয়ে ওঠা সাম্প্রদায়িক শক্তিকে রুখতে চান জমিয়তে উলামা হিন্দের সেক্রেটারী জেনারেল আওলাদে রাসূল সাইয়্যিদ মাহমুদ মাদানী। তিনি বলেন, সাম্প্রদায়িক শক্তিকে পরাজিত করতে আমাদের ঐক্যবদ্ধভাবে যুদ্ধ করতে হবে। ভারতের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিকে বিনষ্ট করার জন্য তৎপর একটা সাম্প্রদায়িক শক্তি। তারা ধর্ম ও বিভিন্ন জাতপাতের মাধ্যমে এগিয়ে চলা সম্প্রীতিকে ধ্বংস করতে চায়। এ ধরনের ঘৃণ্য রাজনীতিকে প্রতিহত করতে হবে।

জাতীয় ঐকমত্যের ভিত্তিতে সাম্প্রদায়িক শক্তিকে পরাজিত করা সম্ভব বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

মাওলানা মাহমুদ মাদানী বলেন, জমিয়তে উলামা হিন্দ দেশব্যাপী সাধারণ মানুষদের মধ্যে দেশপ্রেম জাগ্রত করার লক্ষ্যে সভাসেমিনার করে চলেছে। প্রকৃত দেশপ্রেম কী- তা এসব আয়োজনের মাধ্যমে সুস্পষ্ট হবে ইনশাআল্লাহ।

জমিয়তে উলামা হিন্দের উদ্যোগে ভারতের দিল্লীতে দেশপ্রেম বুঝাতে ১০০টি জনসভার উদ্বোধনী সভায় মাহমুদ মাদানী এসব কথা বলেন।

জমিয়তে উলামা হিন্দের সভাপতি ও দারুল উলূম দেওবন্দের মুহাদ্দিস মাওলানা সাইয়্যিদ উসমান মনসুরপুরী বলেন, আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করলেই সাম্প্রদায়িক শক্তিকে পরাজিত করা সম্ভব। দেশকেও বাঁচানো সম্ভব।

সকল ধর্মনিরপেক্ষ দলগুলোকে জোটবদ্ধভাবে লড়াই করার আহ্বান জানান মাওলানা উসমান মনসুরপুরী।

অল ইন্ডিয়া পার্সনাল ল বোর্ডের সভাপতি মাওলানা হাসান নদভী বলেন, ভারত সৃষ্টিতে মুসলমানদের কী অবদান রয়েছে সে সম্পর্কে আমরা অবগত নই। জানি না। স্বাধীনতা আন্দোলন ও দেশ গঠনে আমাদের পূর্বপুরুষগণ কী ত্যাগ দিয়েছেন, কী ছিল তাদের মেহনত। তা আমাদের জানতে হবে। এই সভাগুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ হবে এ দেশের মুসলমানদের জন্য।

প্রসঙ্গত, জমিয়তে উলামা হিন্দের শতবর্ষ উদযাপন উপলক্ষে ভারতের রাজধানী দিল্লীসহ রাজ্যে রাজ্যে একশোটি সভা-সমাবেশ-সেমিনার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংগঠনটি। দিল্লীতে হয়ে গেল প্রথম জনসভা।

অনেকেই প্রশ্ন করতে পারে কেন জমিয়তে উলামা হিন্দ এ ধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। সংগঠনের দিল্লী অফিসসূত্রে জানা গেছে, ভারতে প্রায়শ মুসলমানদেরকে স্বাধীনতা বিষয়ে নানা প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হচ্ছে। সত্যিকার অর্থেই মুসলমানগণ দেশের প্রতি মমতা রাখেন কিনা। স্কুল, কলেজ, মাদরাসা, মসজিদ, মন্দির, অফিস-আদালত, হাটবাজারসহ সর্বত্র মুসলমানদের এসব প্রশ্নবাণে জর্জরিত হতে হয়। দেশপ্রেম নিয়ে যেসব তীর তাদেরকে ছোড়া হয় সেসবের যথাযথ উত্তর দেয়ার জন্য মুসলমানদেরকে সাহসী করার জন্য একশো সেমিনারের উদ্যোগ হাতে নিয়েছে জমিয়ত।

এদিকে ভারতের সুশীল বুদ্ধিজীবীরা জমিয়তে উলামা হিন্দের দেশপ্রেমের এই জাতীয় উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে। দেশে সাম্প্রদায়িক বিষবাষ্প যেভাবে ছড়িয়ে পড়েছে সে দিক থেকে মুসলমানদের সতর্ক করার উদ্যাগ সমগ্র ভারতকেই বাঁচাবে বলে মনে করছে বুদ্ধিজীবীরা।#শীলনবাংলা

Comment

Share.

Leave A Reply