নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র করছে সরকার : নূর হোসাইন কাসেমী

0

কওমিকণ্ঠ : জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ’র মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী বলেছেন, সারা দেশে ফ্যাসিবাদি শাসন থেকে মুক্তি এবং আইনের শাসন ও জনঅধিকার প্রতিষ্ঠার পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। তাই সরকার পরাজয় আতঙ্কে মিথ্যাচারসহ নির্বাচনী প্রচারণায় বাধাদান, হামলা, মামলা ও গণগ্রেফতারের পথ বেছে নিয়েছে। কিন্তু কোনো ষড়যন্ত্রই ২০ দলীয় জোট প্রার্থীদের বিজয় ঠেকাতে পারবে না। তিনি মানুষের জান, মাল, ইজ্জত-আব্রুর হেফাজত এবং দুঃশাসন থেকে মুক্তি ও নাগিরক অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ২০ দলীয় জোট প্রার্থীদের বিজয় নিশ্চিত করার লক্ষ্যে আলেম-উলামা, তৌহিদী জনতাসহ সর্বস্তরের জনতাকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সকল প্রকার বাধা ও ভীতি উপেক্ষা করে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান।

আজ (১৯ ডিসেম্বর) বুধবার জমিয়ত মহাসচিব এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন।

আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী বলেন, দেশ ও জাতি এক মহাক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। সরকার পরিকল্পিতভাবেই দেশের শাসন ব্যবস্থা ও ন্যায়চারিতার আদর্শিক মূল্যবোধ ধ্বংস করে দিয়েছে। পুরো প্রশাসনযন্ত্রকে সাজানো হয়েছে ক্ষমতাসীন দলের অনুকূলে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এখন সারাদেশেই ঢালাওভাবে গণগ্রেফতার ও গণনিগ্রহ চলছে। সরকারবিরোধী সকল প্রার্থীর প্রচারণায় বাধা দেওয়া হচ্ছে এবং তাদের উপর নির্বিচারে পুলিশের ছত্রছায়ায় দলীয় সন্ত্রাসীরা হামলা চালাচ্ছে।

তিনি বলেন, মূলত: নির্বাচন কমিশন সরকারের আজ্ঞাবহ হয়ে সরকারী দলের মারাত্মক নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘনে কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না। সারাদেশে বিরোধী দলীয় প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচারণায় বাধা দেয়া ও সহিংসতার ঘটনাও ক্রমেই বাড়ছে। গতকাল নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে জমিয়ত নেতা ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী মুফতি মনির হোসাইন কাসেমী’র নির্বাচনী অফিস ভাংচুর করা হয়েছে। প্রশাসনের ছত্রছায়ায় সারাদেশে পরিকল্পিতভাবে এমন একটা ভীতিরক পরিস্থিতি তৈরি করতে, যাতে সাধারণ ভোটাররা নির্বাচনের দিন কেন্দ্রমুখী না হয় এবং নির্বাচন বানচাল হয়ে পড়ে।

আল্লামা কাসেমী হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, জনমতকে দাবিয়ে পৃথিবীর কোন স্বৈরশাসকই ক্ষমতাকে স্থায়ী করতে পারেনি। সকল স্বৈরশাসকের শেষ পরিণতি করুণ হয়ে থাকে।

Comment

Share.

Leave A Reply